সেই এডিসি হারুন ও সানজিদার অবস্থান এখন কোথায়?


ছাত্রলীগ নেতাদের থানায় আটকে মারধরের ঘটনায় সাময়িক বরখাস্ত হওয়া অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদ এখনো ঢাকায় অবস্থান করছেন। তিনি রংপুরের কর্মস্থলে যোগ দেননি। বর্তমানে তিনি ঢাকার বাসায়ই থাকছেন।

তবে অতিরিক্ত উপকমিশনার (এডিসি) সানজিদা আফরিন ডিএমপি সদর দপ্তরে নিয়মিত অফিস করছেন।

রংপুর রেঞ্জের অতিরিক্ত উপমহাপুলিশ পরিদর্শক (অ্যাডমিনিস্ট্রেশন অ্যান্ড ফিন্যান্স) এসএম রশিদুল হক শুক্রবার রাতে বলেন, হারুন অর রশীদ এখনো রংপুর রেঞ্জে যোগ দেননি। শুক্রবার হয়তো, তাই তিনি আসেননি। অফিস ডেতে তিনি আসবেন হয়তো।

আরও পড়ুন ‘স্বামীর চেয়ে কলিগ যখন বেশি আপন হয়, তখন বিষয়টা অস্বাভাবিক না?’

৯ সেপ্টেম্বর রাতে ছাত্রলীগ নেতাদের শাহবাগ থানায় আটকে মারধরের ঘটনায় ডিএমপির রমনা জোনের তৎকালীন অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার (এডিসি) হারুন অর রশীদকে ১০ সেপ্টেম্বর দুবার বদলি করা হয়।

প্রথমে তাকে রমনা বিভাগ থেকে পাবলিক অর্ডার ম্যানেজমেন্ট (পিওএম) উত্তর বিভাগে বদলি করা হয়। পরে পুলিশ সদর দপ্তরের এক প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়, হারুন অর রশীদকে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) অতিরিক্ত পুলিশ সুপার করা হয়েছে।

এর একদিন পর তাকে রংপুর রেঞ্জে বদলি করা হয়। তবে রংপুরে বদলির চার দিন পেরিয়ে গেলেও তিনি সেখানে যোগদান করেননি।

শুক্রবার সন্ধ্যায় হারুন অর রশীদ গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমি ঢাকাতেই আছি। তবে তদন্তাধীন বিষয় নিয়ে কোনো কথা বলতে চাচ্ছি না। তদন্তের পর সব কিছু বের হয়ে আসবে।’

এদিকে এ ঘটনায় আলোচিত এডিসি সানজিদা আফরিন নিয়মিত অফিস করছেন। তিনি বর্তমানে ডিএমপির সদর দপ্তরের ক্রাইম বিভাগে কর্মরত।

এ ঘটনায় রাষ্ট্রপতির এপিএস আজিজুল হকের বিরুদ্ধে তদন্ত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

গত ৯ সেপ্টেম্বর বারডেম হাসপাতালে এডিসি সানজিদাকে কেন্দ্র করে এডিসি হারুনকে মারধরের অভিযোগ উঠে আজিজুল হকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ছাত্রলীগের দুই নেতাকে শাহবাগ থানায় মধ্যযুগীয় কায়দায় মারধর করেন হারুন। এতে ফুঁসে উঠে ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন সংগঠন। পরে হারুনকে বরখাস্ত করা হয়।

আরো পড়তে পারেন:  পাকিস্তানে কোন দল কত আসন পেয়েছে?





Source link

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

 আরো পড়তে পারেন:  

Loading...
আরো পড়তে পারেন:  সাবেক আইজিপি বেনজীর আহমেদ: পদে থাকলে ক্ষমতাবান কর্তা ব্যক্তিদের দুর্নীতির তথ্য কেন আড়ালে থাকে?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *