জিততে হলে ২৩৬ রান করতে হবে টাইগারদের

চাপের মুখে চমৎকার ব্যাটিং করলেন জানিথ লিয়ানাগে। ওয়ানডে ক্যারিয়ারের নবম ম্যাচে প্রথমবারের মতো পেলেন তিন অঙ্কের উষ্ণ ছোঁয়া। তার সেঞ্চুরির সৌজন্যে লড়াই করার পুঁজি পেল শ্রীলংকা।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে ২৩৫ রানে অলআউট হয়েছে সফরকারীরা।

ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসে ১০২ বলে ১০১ রানে অপরাজিত থাকেন লিয়ানাগে। ৬৫ বলে ফিফটি করা মিডল-অর্ডার ব্যাটসম্যান পরের পঞ্চাশ রান করতে খেলেন স্রেফ ৩৬ বল।

 

দলের আর কেউ ৪০ রানও করতে পারেননি।

 

টস জিতে ব্যাট করতে নামা লঙ্কানরা শুরুতেই পড়ে তাসকিন আহমেদের তোপে। নিজের প্রথম দুই ওভারে ২ ওপেনারকে ফেরান তাসকিন। এরপর নিয়মিত বিরতিতেই উইকেট হারায় সফরকারীরা।

 

পঞ্চম উইকেটে প্রতিরোধের চেষ্টা করেন লিয়ানাগে ও চারিথ আসালাঙ্কা। ৩৭ রান করা আসালাঙ্কা ফিরলে ভাঙে ৪৩ রানের জুটি।

 

এরপর মাহিশ থিকশানাকে সঙ্গে নিয়ে অষ্টম উইকেটে ৬০ রানের জুটি গড়েন লিয়ানাগে। এর সৌজন্যে ২০০ পেরিয়ে যায় শ্রীলংকা। পরে সেঞ্চুরি পূর্ণ করে দলকে আড়াইশর কাছে নিয়ে যান ২৮ বছর বয়সি অলরাউন্ডার।

 

বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন তাসকিন। মুস্তাফিজুর রহমান ও মেহেদী হাসান মিরাজ ধরেন ২টি করে শিকার।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

শ্রীলংকা: ৫০ ওভারে ২৩৫ (নিসাঙ্কা ১, আভিশকা ৪, মেন্ডিস ২৯, সামারাউইক্রামা ১৪, আসালাঙ্কা ৩৭, লিয়ানাগে ১০১*, ওয়েলালাগে ১, হাসারাঙ্গা ১১, থিকশানা ১৫, মাদুশান ৩, কুমারা ১; শরিফুল ১০-০-৫৫-০, তাসকিন ১০-১-৪২-৩, মুস্তাফিজ ৯-১-৩৯-২, সৌম্য ২-০-১০-১, মিরাজ ১০-১-৩৮-২, রিশাদ ৯-০-৫১-১)

Source link

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

 আরো পড়তে পারেন:  

Loading...
আরো পড়তে পারেন:  আমেরিকা-ভারত: শিখ হত্যার পরিকল্পনাকারী কে এই ভারতীয় অফিসার ‘সিসি-১?