মিয়ানমার ইস্যুতে কার্যকর কূটনৈতিক পদক্ষেপ না নিলে বড় সমস্যা হবে

মিয়ানমার পরিস্থিতিতে কার্যকর কোনো কূটনৈতিক পদক্ষেপ দ্রুত না নিলে বাংলাদেশের জন্য একটা বড় সমস্যা হয়ে যাবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন জাতীয় সংসদের বিরোধী দলের চিফ হুইপ মুজিবুল হক চুন্নু।

বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় সংসদ অধিবেশনের পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে দেওয়া বক্তব্যে মুজিবুল হক চুন্নু এ আশঙ্কা প্রকাশ করেন।

তিনি বলেন, মিয়ানমারে সংঘাত চলছে। আমাদের এরকমই অবস্থা, ওখান থেকে গুলি এসে আমাদের দুইজন মারা গেছেন। ২৬৪ জন মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর সদস্য অস্ত্রসহ বাংলাদেশে ঢুকতে বাধ্য হয়েছে। তারা সারেন্ডার করেছে, তারা আমাদের বিজিবির তত্ত্বাবধানে আছে। প্রশ্ন হলো, আরাকানদের সাথে যুদ্ধটা যেভাবে শুরু হয়েছে তাতে মনে হচ্ছে এটি অনেক লম্বা হবে। যদি তাই হয় তাহলে আমরা যে ১২ লাখ রোহিঙ্গা আছে তাদেরকে ব্যাক করানোর বিষয়টি অনেকটা অনিশ্চিত অবস্থায় চলে আসছে।

মুজিবুল হক চুন্নু আরও বলেন, আমাদের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সংসদে উপস্থিত নেই। মানুষ একটা উদ্বেগের মধ্যে আছে। কারণ, এখানে যুদ্ধের যে অবস্থা, আমরা ধৈর্য ধরব ঠিক আছে; কিন্তু ধৈর্য আমরা কতটুকু ধরব এবং আমরা কি কি পদক্ষেপ নিয়েছি? ধৈর্য তো ধরবই, কিন্তু আমরা যদি কার্যকর কোনো কূটনৈতিক পদক্ষেপ ইমিডিয়েটলি না নিই তাহলে আমাদের জন্য একটা বড় সমস্যা হয়ে যাবে। কারণ, যেভাবে সেখানে যুদ্ধ হচ্ছে; দেখা যাবে এভাবে লোক আসবে যে আমরা পুশব্যাক করেও পারব না। এখন থেকে যদি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা না নিই তাহলে এই সমস্যাটা প্রকট আকার ধারণ করবে। জাতি বা দেশের মানুষ একটা উদ্বেগের মধ্যে আছে।

তিনি আরও বলেন, যেহেতু সংসদ জাতির সকল কর্মকাণ্ডের প্রাণকেন্দ্র এবং যেহেতু আমরা প্রজাতন্ত্রের মালিকের পক্ষের প্রতিনিধি। এখানে দেশের মানুষের জানার অধিকার আছে যে কীভাবে আমরা এটি মোকাবিলা করছি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে বলবো, বর্ডারের যে অবস্থাটা তার ওপর সার্বিক একটি ব্যাখ্যা, তিনশ বিধিতে জাতিকে জানান।

আরো পড়তে পারেন:  রাজশাহী রংপুরে আ.লীগের বেশিরভাগ এমপিই মনোনয়ন পাচ্ছেন

Source link

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

 আরো পড়তে পারেন:  

Loading...
আরো পড়তে পারেন:  গরিব ও দুর্বলরা সমাজে মূল্যহীন আল্লাহর কাছে মর্যাদাবান