করোনা আতঙ্কে পরমাণু বাংকার খুলে দিয়েছে ইসরাইল

 

করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ায় পাবর্ত্য এলাকায় নির্মিত একটি বাংকার খুলে দিয়েছে ইসরাইল। করোনা থেকে বাঁচতে সেই বাংকারে আশ্রয় নিচ্ছে অবৈধ রাষ্ট্রটির নাগরিকরা।

রয়টার্স জানিয়েছে, লেবাননের হিজবুল্লাহ ও ফিলিস্তিনের হামাস যোদ্ধাদের হামলা থেকে বাঁচতেই এই বাংকার নির্মাণ করেছিল ইসরাইল। করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ায় বাংকার খুলে দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু।

পরমাণু অস্ত্রের হামলা থেকে বাঁচতে এক দশকেরও বেশি সময় আগে জেরুজালেমের পাবর্ত্য এলাকায় এ বাংকার নির্মিত হয়েছিল।

ন্যাশনাল ম্যানেজমেন্ট সেন্টার নামের এই বাংকারটিতে বসবাসের সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা রয়েছে। করোনা মহামারীর চরম ঝুঁকির মুখে চলতি সপ্তাহে বাংকারটি খুলে দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ইসারইলি কর্তৃপক্ষ।

এখান থেকে জেরুজালেমের সরকারি দফতর ও রাজধানী তেলআবিবের সঙ্গে সহজেই যোগাযোগ করা যায়।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক কর্মকর্তা রয়টার্সকে বলেন, করোনা নিয়ন্ত্রণ ও পরিস্থিতির ওপর নজর রাখার ক্ষেত্রে এই বাংকার বড় হাতিয়ার হিসেবে কাজ করবে।

তিনি আরও বলেন, দীর্ঘ সময় ধরে আমাদের এই পরিস্থিতির সঙ্গে লড়তে হবে। দেশে করোনার প্রভাব হ্রাস করতে এটা আমাদের বেশ সাহায্য করবে বলেই প্রত্যাশা।

তবে করোনার ভয়ে বাংকারে থাকার বিরোধিতা করেছেন নেতানিয়াহুর মন্ত্রিসভার বেশ কয়েকজন সদস্য।

প্রতিরক্ষামন্ত্রী নাফতালি বেনেট বলেছেন, ‘আমাদের ওপর কোনো মিসাইল হামলা হচ্ছে না যে মাটির নিচে থাকতে হবে।’ বিষয়টি নিয়ে মজা নিচ্ছেন মন্ত্রিসভার কোনো কোনো সদস্য।

সোমবার পর্যন্ত ইসরাইলে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৪ হাজার ৩৪৭। এদের ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে এবং ৯৫ জনের অবস্থা গুরুতর।

 

সূত্র: যুগান্তর

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

 আরো পড়তে পারেন:  

DSA should be abolished
/ জাতীয়, সব খবর
Loading...
আরো পড়তে পারেন:  হরমুজ প্রণালি কেন এত গুরুত্বপূর্ণ?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *