৯ জানুয়ারি: ইতিহাসে আজকের এই দিনে

১৯৯৫ সালের এই দিনে ইরাক ও রাশিয়ার মধ্যে ‘পারমানবিক চুল্লি’ কেন্দ্র নির্মাণের চুক্তি হয়।

 

আজ ৯ জানুয়ারি, ২০২০, বৃহস্পতিবার। ২৫ পৌষ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ। গ্রেগরিয়ান বর্ষপঞ্জী অনুসারে বছরের ৯ম দিন। এক নজরে দেখে নিই ইতিহাসের এই দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনদের জন্ম-মৃত্যু দিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনাবলি:

১৩১৭ – পঞ্চম ফিলিপস ফ্রান্সের রাজা হিসেবে অভিষিক্ত হন।

১৫২২ – অ্যাড্রিয়ান এফ বোয়েনস পোপ নির্বাচিত হন।

১৭৫৭ – রবার্ট ক্লাইভ হুগলি দখল করেন।

১৭৬০ – বারারি ঘাটের যুদ্ধে আফগানরা মারাঠিদের পরাজিত করে।

১৭৭৬ – বিপ্লবী লেখক টমাস পেইনের ‘কমনসেন্স’ প্রকাশিত হয়।

১৭৯২ – তুরস্কের ওসমানিয়া সাম্রাজ্য এবং রাশিয়ার মধ্যে এক শান্তি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

১৭৯৯ – নেপোলিয়নের বিরুদ্ধে যুদ্ধের জন্য তহবিল গঠনের লক্ষ্যে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী উইলিয়াম পিট আয়কর ব্যবস্থা চালু করেন।

১৮১১ – প্রথম মহিলা গলফ টুর্নামেন্ট শুরু হয়।

১৮১৬ – স্যার হামফ্রে ডেভির নিরাপত্তা বাতি সর্বপ্রথম কয়লার খনিতে ব্যবহৃত হয়।

১৯১৫ – দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ভারতের স্থপতি মোহন দিবেস করম চাঁদ গান্ধীর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন করেন।

১৯১৫ – ব্রিটিশ সৈন্যবাহিনী গালিবুলি যুদ্ধে যোগ দেয়।

১৯১৭ – প্রথম বিশ্বযুদ্ধে ফিলিস্তিনের পাশে মিসর সীমান্তের কাছে রাফায় যুদ্ধ হয়।

১৯১৭ – যুদ্ধে রাশিয়ার যোগ দেওয়ার প্রতিবাদ জানিয়ে রাশিয়ার বিভিন্ন শহরে ধর্মঘট পালন করা হয়।

১৯৪২ – জাপানের সৈন্যবাহিনী মালয়েসিয়ার রাজধানী কুয়ালালাপুর দখল করে।

১৯৪৫ – দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ: মার্কিন বাহিনী ফিলিপাইনের লুজন আক্রমণ করে।

১৯৫১ – নিউইয়র্ক সিটিতে জাতিসংঘ সদর দপ্তরের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ।

১৯৫৪ – সুদানে নিজস্ব সরকারব্যবস্থা প্রবর্তিত হয়।

১৯৬০ – মিসরের নীল নদের উপর বিশ্ব বিখ্যাত আসোয়ান বাঁধের নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়।

১৯৬৪ – পানামায় মার্কিন পতাকা উড্ডয়নের জের হিসেবে পানামা খাল এলাকায় মার্কিন সৈন্য আর স্থানীয় জনসাধারণের মধ্যে তীব্র সংঘর্ষ ঘটে। সংঘর্ষে ২১জন পানাম্যানিয়ন নিহত , ৪জন মার্কিন সৈন্য প্রাণ হারায়।

আরো পড়তে পারেন:  ১৬ নভেম্বর: টিভিতে আজকের খেলা সূচি

১৯৬৮ – মার্কিন মহাশূণ্যযান সার্ভেয়ার চাঁদে অবতরণ করে।

১৯৬৮ – সৌদি আরব, কুয়েত আর লিবিয়ার যৌথ উদ্যোগে আরব তেল দাতা দেশের সংস্থা ওপেক প্রতিষ্ঠিত হয়। এই সংস্থার সদর দফতর কুয়েতে অবস্থিত।

১৯৮২ – মিশর ও ইজরাইল সিনাই থেকে ইজরালি সৈন্য প্রত্যাহারে সম্মত হয়।

১৯৮৩ – পানামার কংডাডোলা দ্বীপে কলিম্বিয়া, ভেলারিয়া, মেকসিকো আর পানামার পররাষ্ট্র মন্ত্রীদের মধ্যে বৈঠক হয়। তাদের মধ্যে মধ্য আমেরিকার বিরোধের সম্পত্তি নিয়ে আলোচনা হয়।

১৯৮৯ – ব্রিটেনের মিল্যাণ বিমান কোম্পানির বোইং ৭৩৭ যাত্রীবাহী বিমান আকাশে উড্ডয়নের ১৭ মিনিটের পর মাটিতে ভূপাতিত হয়।

১৯৯১ – উপসাগরীয় যুদ্ধের অবসান ঘটানোর লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত জেনেভা বৈঠক ব্যর্থ হয়।

১৯৯২ – বাংলাদেশের জাতীয় সংসদে বিভক্তি ভোটে সরকারি দলের পরাজয় ঘটে।

১৯৯৫ – ইরাক ও রাশিয়ার মধ্যে ‘পারমানবিক চুল্লি’ কেন্দ্র নির্মাণের চুক্তি হয়।

১৯৯৭ – শ্রীলঙ্কায় সরকার নিয়ন্ত্রিত এলাকায় প্রবেশ করে তামিল গেরিলারা ১৪২ সৈন্যকে হত্যা করে।

২০০৫ – প্যালেস্টাইন লিবারেশন অর্গানাইজেশনের (পিএলও) প্রধান পদে নির্বাচনে রুহি ফতোয়া জয়ী হন।

জন্ম:

১৫৫৪ – পোপ পঞ্চদশ গ্রেগরি জন্ম গ্রহণ করেন।

১৮১১ – জন্ম গ্রহণ করেছিলেন গিলবার্ট অ্যাবট এ বেকেট, তিনি ছিলেন ইংরেজ সাংবাদিক ও লেখক।

১৮৮৪ – সাহিত্যিক ও আইনজীবী সৌরীন্দ্রমোহন মুখোপাধ্যায় জন্মগ্রহণ করেন।

১৮৯০ – খ্যাতনামা চেক লেখক এবং নাট্যকার ক্যারেল কাপেক জন্মগ্রহণ করেছিলেন।

১৮৯৮ – জন্ম গ্রহণ করেছিলেন ওয়ালয় বেকার, তিনি ছিলেন আমেরিকান মহা শতবর্ষবয়স্ক মানব।

১৯০৮ – জন্ম গ্রহণ করেছিলেন সিমোন দ্য বোভোয়ার, তিনি ছিলেন ফরাসি দার্শনিক ও লেখক।

১৯১২ – জন্ম গ্রহণ করেছিলেন রামকৃষ্ণ রায়, তিনি ছিলেন বাঙালি, ব্রিটিশ বিরোধী স্বাধীনতা আন্দোলনের শহীদ বিপ্লবী।

১৯১৩ – জন্ম গ্রহণ করেছিলেন রিচার্ড নিক্সন, তিনি ছিলেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৩৭তম রাষ্ট্রপতি।

১৯২২ – জন্ম গ্রহণ করেছিলেন হর গোবিন্দ খোরানা, তিনি ছিলেন নোবেল বিজয়ী ভারতীয় বংশোদ্ভূত আমেরিকান প্রাণরসায়নী ও অধ্যাপক।

আরো পড়তে পারেন:  ২০ জানুয়ারি: ইতিহাসে আজকের এই দিনে

১৯২৬ – জন্ম গ্রহণ করেছিলেন সিডনি লততেরব্য, তিনি ছিলেন ব্রিটিশ টেলিভিশনের প্রযোজক ও পরিচালক।

১৯৩৩ – জন্ম গ্রহণ করেছিলেন উইলবার এডিসন স্মিথ, তিনি জাম্বিয়ারবংশোদ্ভূত ইংরেজ সাংবাদিক ও লেখক।

১৯৪৪ – জন্ম গ্রহণ করেছিলেন জিমি পেজ, তিনি ইংরেজ গিটার, গীতিকার ও প্রযোজক।

১৯৫৯ – জন্ম গ্রহণ করেছিলেন রিগবারটা মেঞ্চু, তিনি নোবেল পুরস্কার বিজয়ী গুয়াতেমালার সমাজ কর্মী।

১৯৬৫ – জন্ম গ্রহণ করেছিলেন ফারহা খান, তিনি ভারতীয় অভিনেত্রী, পরিচালক ও কোরিওগ্রাফার।

১৯৭৪ – জন্ম গ্রহণ করেছিলেন ফারহান আখতার, তিনি ভারতীয় অভিনেতা, গায়ক, পরিচালক ও প্রযোজক।

১৯৭৮ – জন্ম গ্রহণ করেছিলেন গেন্নারো গাতুসো, তিনি সাবেক ইতালিয়ান ফুটবলার ও ম্যানেজার।

১৯৮৫ – জন্ম গ্রহণ করেছিলেন জুয়ান ফ্রান্সিসকো টরেস, তিনি স্প্যানিশ ফুটবলার।

১৯৮৭ – জন্ম গ্রহণ করেছিলেন লুকাস লেইভা, তিনি ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার।

১৯৮৯ – জন্ম গ্রহণ করেছিলেন নিনা ডব্রেভ, তিনি বুলগেরিয় বংশোদ্ভূত কানাডিয়ান অভিনেত্রী ও গায়িকা

মৃত্যু:

১২৮৩ – চীনের প্রধানমন্ত্রী ওয়েন তিয়ানজিয়ান মৃত্যুবরণ করেন।

১৩২৪ – মৃত্যুবরণ করেন মার্কো পোলো, তিনি ছিলেন ইতালিয়ান বণিক ও এক্সপ্লোরার।

১৬৯৩ – কলকাতা নগরীর পত্তনকারী জোব চার্নক মৃত্যুবরণ করেন।

১৭৫৭ – মৃত্যুবরণ করেন বার্নার্ড লে বভিয়ের ডি ফন্টেনেলে, তিনি ছিলেন ফরাসি লেখক, কবি ও নাট্যকার।

১৭৯৯ – মৃত্যুবরণ করেন মারিয়া গায়েটানা আগ্নেসি, তিনি ছিলেন ইতালীয় গণিতবিদ ও দার্শনিক।

১৮৪৩ – মৃত্যুবরণ করেন উইলিয়াম হেদলেয়, তিনি ছিলেন ইংরেজ প্রকৌশলী।

১৯১১ – মৃত্যুবরণ করেন এডুইন আর্থার জোনস, তিনি ছিলেন আমেরিকান সুরকার।

১৯২৩ – প্রথম ভারতীয় সিভিলিয়ান ও সাহিত্যিক সত্যেন্দ্রনাথ ঠাকুর পরলোকগমন করেন।

১৯৪৪ – মৃৎশিল্পী গোপেশ্বর পাল পরলোকগমন করেন।

১৯৪৫ – ইংরেজ দার্শনিক ও ঐতিহাসিক রবিন জর্জ কলিংউড মৃত্যুবরণ করেন।

১৯৬০ – মৃত্যুবরণ করেন এলসি জে. অক্সএনহাম, তিনি ছিলেন ইংরেজ লেখক।

আরো পড়তে পারেন:  পরিবারের সব ভাইয়ের একজনই বউ সেখানে

১৯৬১ – মৃত্যুবরণ করেন এমিলি গ্রিন বল্চ, তিনি ছিলেন নোবেল পুরস্কার বিজয়ী আমেরিকান অর্থনীতিবিদ।

১৯৭২ – বীণকার ওস্তাদ দবির খাঁ ইন্তেকাল করেন।

১৯৭৩ – মৃত্যুবরণ করেন তৃতীয় নেপোলিয়ন, তিনি ছিলেন ফরাসি রাজনীতিবিদ ও ১ম রাষ্ট্রপতি।

১৯৮৪ – ভারতবিদ্যা বিশেষজ্ঞ জন ব্রাফে মৃত্যুবরণ করেন।

১৯৯৪ – কমিউনিস্ট নেতা দেবেন শিকদার পরলোকগমন করেন।

১৯৯৮ – মৃত্যুবরণ করেন কেনিচি ফুকুই, তিনি ছিলেন নোবেল পুরস্কার বিজয়ী জাপানি রসায়নবিদ।

২০১৩ – মৃত্যুবরণ করেন জেমস ম্যাকগিল বিউকানান, তিনি ছিলেন নোবেল পুরস্কার বিজয়ী মার্কিন অর্থনীতিবিদ ও অধ্যাপক।

২০১৪ – মৃত্যুবরণ করেন ডেল টমাস মর্টেনসেন, তিনি ছিলেন নোবেল পুরস্কার বিজয়ী আমেরিকান অর্থনীতিবিদ ও অধ্যাপক।

 

সূত্র: যুগান্তর

 

আরো পড়ুন:

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *