সিসিটিভি’র ফুটেজে হামলাকারী, কাঁধে বিস্ফোরকের ব্যাগ, ঢুকছে গির্জায় (ভিডিও)

 

সিরিজ বোমা হামলায় তছনছ দ্বীপ রাষ্ট্র শ্রীলঙ্কা। রবিবার সকালে ইস্টার সানডে উদযাপনের সময় দেশটির রাজধানী কলম্বোসহ বিভিন্ন শহরের গির্জা ও হোটেলে ভয়াবহ এই বোমা হামলার ঘটনা ঘটে। এতে অন্তত ৩১০ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো কমপক্ষে ৫০০ জন।

ওই দিন দেশটির ৩টি গির্জায় আত্মঘাতী বোমা হামলা হয়েছে। এর মধ্যে একটি ছিল নেগাম্বো শহরের সেন্ট সেবাস্তিয়ান গির্জা। এই গির্জায় সন্দেহভাজন হামলাকারীর একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে সিএনএন।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, এক যুবক পিঠে ভারী ব্যাগ নিয়ে গির্জায় ভেতরে যাচ্ছেন। এর কিছুক্ষণ পরই ঘটে বিস্ফোরণ। যুবকটি গির্জায় প্রবেশের আগে একটি বাচ্চার গালে হাত বুলিয়ে যায় বলে জানান হামলায় বেঁচে যাওয়া এক ব্যক্তি। ভিডিওতে সেই দৃশ্যটিও রয়েছে। 

এর আগে প্রত্যক্ষদর্শী ওই পরিবারও এই যুবকের বর্ণনা দিয়েছে এবং তাকেই হামলাকারী হিসেবে চিহ্নিত করেছে।

দিলিপ ফারনান্দো নামে এক ব্যক্তি বলেন, রবিবার সকালে তিনি তার স্ত্রীকে নিয়ে ওই গির্জায় প্রার্থনা করতে গিয়েছিলেন। কিন্তু গির্জার সামনে গিয়ে অনেক ভিড় দেখতে পান।

তিনি বলেন, ‘এসময় এত ভিড় ছিল যে সেখানে দাঁড়ানোর মতো জায়গাও ছিল না। তাই আমি সেখানে সময় নষ্ট করতে চাইনি। দ্রুত সেখান থেকে অন্য গির্জার উদ্দেশে চলে যেতে ভিড় থেকে বেরিয়ে আসি।’

তার এই সিদ্ধান্তের কারণেই তারা প্রাণে বেঁচে যান। কেননা, ওই ভিড়ের সময়ই সেখানে বোমার বিস্ফোরণ হয়।

তবে তাদের পরিবারের আরও কয়েকজন ওই ভিড়ের মাঝেই ছিল। যারা সবাই প্রাণে বেঁচে গেছেন। তারা বলেন, ‘আমরা মনে হয় ওই হামলাকারীকে দেখেছি।’

দিলিপ বলেন, ‘আমরা দেখলাম ভিড়ের শেষ প্রান্ত থেকে এক যুবক সবাইকে ঠেলে ভেতরে যাচ্ছে। তার কাঁধে ছিল ভারী একটি ব্যাগ। পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় সে আমার নাতনির মাথায় হাত বুলায়। এটাই ছিল হামলাকারী।’

উল্লেখ্য, রবিবার ইস্টার সানডে পালনের সময় দেশটির রাজধানী শহর কলম্বোর কচ্চিকাডের সেন্ট অ্যান্থনি গির্জা, নিগাম্বোর সেন্ট সিবাস্তিয়ান গির্জা ও বাত্তিকালোয়ার জিওন গির্জায় হামলার ঘটনা ঘটে। এছাড়া রাজধানীর শাংরি লা হোটেল, সিনামন গ্রান্ড ও কিংসবারি পাঁচ তাঁরা হোটেলেও বিস্ফোরণ হয়। এরপর আরও দুটি স্থানে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। 

সূত্র: কালের কণ্ঠ

আন্তর্জাতিক আরো প্রতি মূর্হর্তের খবর জানুন এখানে

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *