সম্মান দেখিয়ে চেয়ার ছেড়ে দিলেন উপমন্ত্রী নওফেল

 

ইউনির্ভাসিটি অব ব্রাহ্মণবাড়িয়ার শিক্ষা কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি করা হয় শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলকে। অনুষ্ঠান মঞ্চের সামনে থাকা নয়টি চেয়ারের মধ্যে তোয়ালে দেওয়া ঢাকা একটিতে প্রধান অতিথি বসার জন্য নির্ধারণ করা হয়। তবে অনুষ্ঠানের সভাপতি, ইউনিভার্সিটি অব ব্রাহ্মণবাড়িয়ার প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ (সদর-বিজয়নগর) আসনের সংসদ সদস্য র. আ. ম. উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরীকে সম্মান দেখিয়ে সেই চেয়ারে বসলেন না তিনি। পুরো অনুষ্ঠানজুড়েই প্রধান অতিথির পাশের চেয়ারে বসে ছিলেন উপমন্ত্রী।

আজ বুধবার বিকেলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপস্থিত একাধিক সূত্র জানায়, মঞ্চে উঠার পরপরই মোকতাদির চৌধুরী প্রধান অতিথির জন্য নির্ধারিত চেয়ারে (অন্য চেয়ারের চেয়ে একটু উঁচু) বসতে মহিবুল হাসানকে অনুরোধ করেন। তাৎক্ষণিকভাবে মহিবুল হাসান ওই চেয়ারে বসার জন্য মোকতাদির চৌধুরীকে অনুরোধ করে বলেন, ‘আপনি আমার মুরুব্বী। আপনিই এখানে বসবেন।’ ভার্সিটির প্রস্তাবিত উপাচার্য ডা. মো. আনোয়ার হোসেনও এ সময় ব্যারিস্টার নওফেলকে অনুরোধ করলেও তিনি ওই চেয়ারে না বসে পাশের চেয়ারে বসেন। বিষয়টি উপস্থিত অনেকেরই দৃষ্টিগোচর হয়।

এদিকে অনুষ্ঠানের উপস্থাপক অদিতি রায় উপমন্ত্রী মহিবুল হাসানকে বক্তব্য রাখার জন্য তাঁকে আমন্ত্রণ জানানোর সময় তাঁর সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরতে শুরু করেন। কিন্তু হাসি দিয়ে অদিতিকে হাতের ইশারায় থামিয়ে বক্তব্য রাখতে মঞ্চের ডায়েসের দিকে চলে আসেন মহিবুল হাসান। এর আগে ভার্সিটির ট্রাস্টি ড. সাজ্জাদ হোসেন তাঁর বক্তব্যের শুরুতে মহিবুল হাসানকে নিয়ে কথা বলতে চাইলে তখনও থামিয়ে দেন তিনি।

বক্তব্য রাখতে গিয়ে মোকতাদির চৌধুরীকে পিতৃতুল্য বলে উল্লেখ করেন মহিবুল হাসান। পরে মোকতাদির চৌধুরী অনুষ্ঠানের সভাপতির বক্তব্যে মহিবুল হাসানকে স্নেহ ধন্য ও তাঁর পিতা এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীকে শ্রদ্ধেয় নেতা বলে উল্লেখ করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের প্রতিটি জেলায় সরকারি-বেসরকারি উদ্যোগে বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। শেখ হাসিনা সুষম উন্নয়নে বিশ্বাসী।’

আরো পড়তে পারেন:  স্মার্টফোন ভাইরাস মুক্ত করবেন যেভাবে

এ ছাড়াও প্রশিক্ষিত সন্তানের মাধ্যমে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলা সম্ভব বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আগে ভার্সিটির সামনে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল উদ্বোধন করেন উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান।

 

সূত্র: কালেরকণ্ঠ

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

 আরো পড়তে পারেন:  

Loading...
আরো পড়তে পারেন:  প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড এর বার্ষিক সম্মেলনে অংশগ্রহন কারিদের জন্য সতর্কবার্তা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *