সমুদ্র উপকূলে সোনার সন্ধান, দলে দলে হাজির গ্রামবাসী!

ভেনেজুয়েলার ক্যারিবিয়ান সমুদ্র সৈকতে বদলে গেল এক মৎস্যজীবীর ভাগ্য। প্রতিদিনকার মতোই সে সকালে টয়লেটে যাচ্ছিল, এমন সময় সমুদ্রের তীরে কিছু একটা জ্বলজ্বল করতে দেখে সে। বালিতে হাত দিয়ে সেই জিনিস যখন তিনি বের করে আনেন দেখা যায় সেটি একটি স্বর্ণপদক।

যে জেলে এই সোনার সন্ধান পান তার নাম ইলম্যান ল্যারেস। তার সোনা পাওয়ার খবর মুহূর্তে দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়ে। এরপরেই দলে দলে মৎস্যজীবী এসে সোনা পাওয়ার জন্য সেখানে বালি খুঁড়তে শুরু করে দেন।

গুয়াকা গ্রামের বেশিরভাগ মৎসজীবীরা উপকূলের পাশের বালিতে মাছ ধরার এবং প্যাকিংয়ের সরঞ্জাম দিয়ে সোনার খোঁজ শুরু করে। লোকেদের বিশ্বাস ছিল তারা ফের এমন সোনা পেতে পারে।

গুয়াকা গ্রামের মোট জনসংখ্যা ২০০০ এর বেশি। সোনার সন্ধান মিলতেই বেশিরভাগ বাসিন্দারা পাগলের মতো সোনা খুঁজতে শুরু করে দেয়। এমনকি মাছ ধরার নৌকো দিয়ে তারা খোদাইয়ের কাজ শুরু করে। কিছু লোক তো সেখানেই ঘুমাতে শুরু করে যাতে অন্য কেউ সোনা না নিতে পারে।

বেশ কিছু গ্রামবাসী দাবি করেছেন, তারা বেশ কিছু মূল্যবান জিনিস পেয়েছেন যার মধ্যে সোনার আংটিও রয়েছে। কিছু লোক তাদের সোনার গয়না ১ লাখের বেশি টাকায় বিক্রিও করেছেন। অনেকের কাছে এই টাকাটা ছিল অপ্রত্যাশিত। মৎস্যজীবীরা জানাচ্ছেন, ‘ঈশ্বরই আমাদের প্রতি তার অনুগ্রহ বর্ষণ করছেন।’ সূত্র: বিডি প্রতিদিন

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

 আরো পড়তে পারেন:  

DSA should be abolished
/ জাতীয়, সব খবর
Loading...
আরো পড়তে পারেন:  করোনা ভাইরাস: টিউশনিতে করোনাভাইরাসের থাবায় বিপর্যস্ত অসংখ্য তরুণ-তরুণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *