রাইড শেয়ারে যাত্রী বেশে চালকের গলা কেটে মোটরসাইকেল ছিনতাই

    মো. মিলন। ছবি: সংগৃহীত

রাজধানীতে অ্যাপস ছাড়া চুক্তিভিত্তিক রাইড শেয়ার করতে গিয়ে দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে মো. মিলন (৩৫) নামে এক যুবক খুন হয়েছেন বলে ধারণা করছে পুলিশ।

রবিবার রাত আড়াইটার দিকে মালিবাগ ফ্লাইওভারে মিলনকে গলায় ছুরিকাঘাত করে তার মোটরসাইকেল ও মোবাইল নিয়ে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্ত। পরে তিনি নিজ হাতে গলা চেপে ধরে হাসপাতালে যাওয়ার চেষ্টা করেন। সোমবার ভোরে তার মৃত্যু হয়।

দুই সন্তানের জনক নিহত মিলন রাজধানীর মিরপুরের গুদারাঘাট এলাকায় পরিবারসহ থাকতেন। 

এ ঘটনায় শাহজাহানপুর থানায় একটি হত্যা মামলা হয়েছে বলে জানিয়েছেন শাজাহানপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আতিকুর রহমান।

এসআই বলেন, রবিবার রাতে মিলন আবুল হোটেলের পাশ দিয়ে উড়াল সড়কে ওঠেন। মালিবাগ থেকে শান্তিনগরে যাওয়ার পথে পদ্মা ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ভবনের সামনে উড়ালসড়কে মিলনকে ছুরিকাঘাত করা হয় বলে তথ্য পেয়েছি। এরপর তিনি নিজেই গলা চেপে ধরে হাসপাতালের দিকে যাওয়ার চেষ্টা করেন। পথে দুজন পথচারী তাকে নিয়ে যান।

আতিকুর রহমান বলেন, মিলন রাতে রাজধানীতে নিজের মোটরসাইকেলে উবার ও পাঠাও -এর মাধ্যমে রাইড শেয়ার করতেন। তবে ৭ আগস্ট পর্যন্ত অ্যাপসের মাধ্যমে রাইড শেয়ারের তথ্য পাওয়া যায়। এরপর আর অ্যাপসের মাধ্যমে রাইড শেয়ারের রেকর্ড পাওয়া যায়নি। তিনি চুক্তিতে যাত্রী নিতেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, যারা অ্যাপসের মাধ্যমে রাইড শেয়ার করেন তাদের অনেকেই এখন চুক্তিতে যাত্রী পরিবহন করেন। এ কারণে কোনো রেকর্ড থাকে না মোবাইলে। অ্যাপসের মাধ্যমে রাইড শেয়ার করলে আসামিদের দ্রুত চিহ্নিত করা যায়।

মিলনকে প্রথমে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে জাতীয় হৃদ্‌রোগ ইনস্টিটিউটে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে সোমবার ভোরে তার মৃত্যু হয় বলে জানায় পুলিশ।

পুলিশ জানায়, মিলনের গলার ডান পাশে চাকু বা অন্য কোনও ধারালো কিছু দিয়ে টান দেওয়া হয়েছে। গলার ভেতরে অনেক ক্ষত হয়েছে। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণেই তার মৃত্যু হয়।

নিহত মিলনের ময়নাতদন্ত শেষে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

আরো পড়তে পারেন:  এক কিলোমিটার দৌড়ে ছিনতাইকারী ধরলেন ম্যাজিস্ট্রেট

সূত্র: দেশ রূপান্তর

দেশের আরো প্রতি মূর্হর্তের খবর জানুন এখানে

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *