`মা, আমাগো কতাগুলো শেখ হাসিনারে বইলো’

 

‘মা, আমাগো কতাগুলো শেখ হাসিনারে বইলো। উনি যে রিকশা চলাচল বন্ধ কইরা আমাগো প্যাটে লাত্থি মারল। আমরা বাঁচুম ক্যামনে? খামু ক্যামনে।’ -এই কথা বলতে বলতে কান্নায় ভেঙে পড়েন সত্তরোর্ধ আব্দুল মজিদ মিয়া। তিনি ৩০ বছর ধরে ঢাকা শহরে রিকশা চালান।

সোমবার মানিকনগর বিশ্বরোডের মোড়ে তিন রাস্তায় রিকশা বন্ধ করার প্রতিবাদে রাস্তা অবরোধ করে রিকশা চালকরা। এসময় আব্দুল মজিদ মিয়ার মতো প্রায় পাঁচশতাধিক রিকশা চালক সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত রাস্তা অবরোধ করে রাখেন।

রিকশা চালকরা জানান, যতক্ষণ তাদের দাবি পূরণ না হবে তারা রাস্তা ছাড়বে না। তারা আরো বলেন, আমরা রিকশা চালানো ছাড়া আর কোনো কাজ জানি না। আমরা ঢাকাতে রিকশা চালাই। এই টাকা বাড়িতে পাঠাই। সেই টাকা দিয়ে আমাদের বয়স্ক বাবা-মায়ের দেখা শোনা করি। ছেলেমেয়েদের পড়াশোনা করাই। আমাদেরকে কাজ করতে না দিলে আমরা কীভাবে বাঁচব?

এসময় রাস্তার পাশে পুলিশ নির্বাক দাঁড়িয়ে থাকেন। রাস্তায় চলাচলরত সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা বললে, তারাও রিকশা চলার ব্যাপারে সংহতি প্রকাশ করেন। পথচারী শাহনাজ বেগম বলেন, আমরা তো জমিদার না। আমাদের গাড়ি কেনার সামর্থ্য নেই। বড়লোকদের এক পরিবারে তিন-চারটা গাড়ি আছে। রিকশা বন্ধ করে দিলে আমরা চলব কীভাবে?
আরেক পথচারী সুজন মিয়া বলেন, রিকশা বন্ধ করায় রিকশাওয়ালা আর রিকশা যাত্রীর উভয়েই ক্ষতিগ্রস্ত। রিকশা বন্ধের ঘোষণা এলো কিন্তু আমরা সাধারণ জনগণ কীভাবে চলাচল করব কেউ ভাবল না।

সূত্র: আমাদের সময়

দেশের আরো প্রতি মূর্হর্তের খবর জানুন এখানে

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *