মার্কিন ইতিহাসে দ্বিতীয়বারের মত অভিশংসিত ট্রাম্প

যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম প্রেসিডেন্ট হিসেবে, দ্বিতীয়বারের মতো অভিশংসিত হলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। স্থানীয় সময় বুধবার বিকেলে কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষেদের ২৩২-১৯৭ ভোটে আইনপ্রণেতারা ট্রাম্পকে অভিশংসন করেন। বৃহস্পতিবার ভোরে এই (বাংলাদেশ সময়) এই রায় দেওয়া হয়।
ডেমোক্রেটিক পার্টির অভিশংসন প্রস্তাবে ১০ রিপাবলিকান নেতাও সমর্থন জানিয়েছেন। বিবিসি জানায়, দীর্ঘ প্রায় সাড়ে পাঁচ ঘণ্টার বিতর্ক শেষে অভিশংসন প্রস্তাবটি ২৩২ -১৯৭ ভোটে পাশ হয়। ট্রাম্পের পক্ষে ১৯৭ ভোট দেন রিপাবলিকান প্রতিনিধিরা। এবার প্রতিনিধি পরিষদে পাস হওয়া এই প্রস্তাব যাবে কংগ্রেসের উচ্চ কক্ষ সিনেট শুনানিতে।
গত নভেম্বরের নির্বাচনে পরাজয়ের ফলে ট্রাম্পের মেয়াদ রয়েছে ২০ জানুয়ারি পর্যন্ত। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে দুইবার অভিশংসিত হওয়া প্রেসিডেন্ট কেবল ট্রাম্প।
তবে উচ্চকক্ষ ১০০ সিনেট সদস্যের মধ্যে ডেমোক্র্যাট ও রিপাবলিকান সিনেটরের সংখ্যা সমান। সেখানে এই অভিশংসন প্রস্তাব দুই তৃতীয়াংশ সমর্থন পেলেই মেয়াদ পূর্ণ হওয়ার আগেই পদ থেকে বিতাড়িত হবেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তবে ২০ তারিখের আগে সিনেটে কোনো অধিবেশন বসছে না। আগামী পাঁচদিনের মধ্যে যদি সিনেটের রায় না পাওয়া যায় তবে প্রেসিডেন্ট মেয়াদ এ যাত্রা পূর্ণ হবে। কিন্তু আর কখনওই যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হতে পারবেন না ট্রাম্প।
প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি বলেন, কেউ আইনের উর্ধে নয়, এমনকি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পও নন।
এদিকে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ট্রাম্পের অভিশংসন নিয়ে এখন পর্যন্ত কোন মন্তব্য করেননি।
বুধবার ট্রাম্পকে অভিশংসনের প্রস্তাবের ভোটের আগে কয়েক ঘণ্টা ধরে বিতর্ক চলে। সেসময় ক্যাপিটলের ভিতরে এবং বাইরে দেশটির জাতীয় নিরাপত্তা রক্ষীরা অবস্থান করছিল।
এর আগে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যাবহারের অভিযোগে অভিশংসিত করা হয়। ট্রাম্প ইউক্রেনের সরকারের কাছে তাকে নভেম্বরে পুনঃনির্বাচিত হতে সহায়তা চান। ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে ফোনালাপে সদ্য বিজয়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের বিরুদ্ধে দুর্নীতিবিরোধী তদন্তের আহ্বান জানান তিনি। এছাড়া কংগ্রেসকে তদন্তে বাধা প্রদানের অভিযোগেও অভিযুক্ত হন তিনি। সূত্র : বিবিসি, এনডিটিভি

আরো পড়তে পারেন:  যে মসজিদে প্রতিদিন ৩০ হাজার মানুষকে বিনামূল্যে ইফতার করানো হয় (ভিডিওসহ)

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

 আরো পড়তে পারেন:  

DSA should be abolished
/ জাতীয়, সব খবর
Loading...
আরো পড়তে পারেন:  ২৯ ডিসেম্বর: টিভিতে আজকের খেলা সূচি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *