মহানবীর (সা) অবমাননার প্রতিবাদে বিক্ষোভে উত্তাল বাংলাদেশ

ফ্রান্সে ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন করে প্রিয় রাসুল বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ ( সা.) এর এবং তাঁর অনুসারীদের প্রতি যে অবমাননা করা হয়েছে তার প্রতিবাদে বিশ্বের  সব দেশের মুসলমানদের মতো বাংলাদেশের মুসলমানরাও প্রতিবাদ-বিক্ষোভে সোচ্চার হয়েছেন।

গত কয়েকদিন ধরেই রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রতিবাদ সমাবেশ করে ফ্রান্সে এ ব্যঙ্গ চিত্র প্রদর্শন বন্ধ করার  ও ফরাসি প্রেসিডেন্টের  ইসলাম বিরোধী  বক্তব্য প্রত্যাহার করে প্রকাশ্য ক্ষমা প্রার্থনার দাবি  জানানো হয়েছে।

আজকেও রাজশাহী, নেত্রকোনা, হবিগঞ্জ, ফরিদপুরসহ বিভিন্ন জেলায়  ধর্মপ্রাণ ও নবীপ্রেমী মুসলমানরা বিভিন্ন ব্যানারে বিক্ষোভ করেছে। এসময় ফ্রান্সের জাতীয় পতাকা ও ফরাসি প্রেসিডেন্টের ছবিতে অগ্নিসংযোগ করে ফরাসী পণ্য বয়কট করতে মুসলমানদের আহবান জানানো হয়েছে।

ফ্রান্সে মহানবীর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে নেত্রকোনায় বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল করেছে খেলাফত যুব আন্দোলন। বুধবার (২৮ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০টায় নেত্রকোনা শহরের বড় বাজার জামে মসজিদের সামনে এ বিক্ষোভ সমাবেশ করে সংগঠনটি। পরে সেখান থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে আখড়ার মোড় হয়ে ছোট বাজার দিয়ে শহর প্রদক্ষিণ করে। মিছিলটি শেষ হয় মোক্তারপাড়া জামে মসজিদে গিয়ে। আর সেখানেও  সমাবেশ করে সংগঠনটি। এতে ধর্মপ্রাণ মুসুল্লিরা ছাড়াও বিভিন্ন মসজিদ-মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরাও অংশ নেন। বিক্ষোভ সমাবেশে ফ্রান্সের সকল পণ্য বয়কট করা হবে বলে জানান তারা।

এর আগে গতকাল বাংলাদেশের  অন্যতম বৃহৎ ইসলামী সংগঠন ‘ইসলামী আন্দোলন-বাংলাদেশ’ রাজধানীতে  ফরাসি দূতাবাস ঘেরাও করতে গেলে পুলিশ মাঝপথে বাধা দিয়ে কর্মসূচী বানচাল করে দেয়। এ সময় দলটির আমির চরমোনাইয়ের পীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করিম প্রশ্ন তুলেছেন,  ফ্রান্সের রাষ্ট্রপতি রাসুল (সা.) কে নিয়ে ব্যঙ্গ উক্তি করার পর সারা বিশ্বের মুসলিম রাষ্ট্রপ্রধানরা বিভিন্ন ব্যবস্থা নিলেও শতকরা ৯২ ভাগ মুসলমানের দেশ – বাংলাদেশের  সরকার এখনও নিশ্চুপ কেন?

এদিকে প্রিয় নবী ( স: ) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের  প্রতিবাদে শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ কর্মসূচী পালন ও  ফরাসী পণ্য বর্জনের ডাক দিয়েছেন দেশের  বিশিষ্ট আলেম ও চিন্তাবিদরা। এ এই ন্যক্কারজনক ঘটনার  প্রতিবাদে আগামীকাল  বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) সারা দেশের জেলা ও মহানগরে  বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করার  ঘোষণা দিয়েছে ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশ। এ ছাড়াও আগামী  শুক্রবার জুম্মার দিন রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন জেলায়  ব্যাপক প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করবে বিভিন্ন ইসলামি সংগঠন ও মাদ্রাসার ছাত্র-শিক্ষকসহ  সর্বস্তরের  মুসলমানরা। সূত্র: পার্স টুডে

আরো পড়তে পারেন:  যে দেশে ‘করোনাভাইরাস’ শব্দটি উচ্চারণ নিষেধ, মাস্ক পরা বেআইনি

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

 আরো পড়তে পারেন:  

DSA should be abolished
/ জাতীয়, সব খবর
Loading...
আরো পড়তে পারেন:  ৪ ডিসেম্বর: ইতিহাসে আজকের এই দিনে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *