বিয়ের দিন বউকে রেখে স্টেডিয়ামে জামাই

বিয়ে করেই মাঠে এসেছেন বর, সঙ্গে ছিলেন বন্ধুরাও

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে জিম্বাবুয়ের মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ। মঙ্গলবার সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডে চলাকালীন সময়ে দেখা গেছে এক অদ্ভুত ঘটনা। এদিন সদ্য বিবাহিত বউকে বাসায় রেখে খেলা দেখতে চলে আসেন ক্রিকেটপাগল বর। স্বাভাবিকভাবেই ঘটনাটি ব্যাপকভাবে সাড়া ফেলেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

বরের নাম আলী হায়দার লাবলু। তার পৈতৃক নিবাস সিলেটের বিশ্বনাথে, বিয়েও করেছেন সেখানেই। স্টেডিয়ামে বরের সাজেই চলে আসার ব্যাপারে তাকে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান, আমি বিয়ের প্রাথমিক কাজ সেরে বউকে বাসায় রেখেই চলে এসেছি। এখন মূলত আমেরিকায় থাকি। আমি মাশরাফী, তামিম ইকবাল ও মাহমুদউল্লাহর বিগ ফ্যান।

কথাসূত্রে তিনি আরো বলেন, দীর্ঘ ১১ বছর ধরে বিদেশে থাকি। বিয়ের জন্য ৪-৫ দিন আগে দেশে এসেছি। দেশে সহজে খেলা দেখার সুযোগ পাব না। তাই এভাবে চলে আসা।

বউকে রেখেই চলে আসায় বাসা থেকে কিছু বলা হয়েছে কি না জিজ্ঞেস করলে লাবলু বলেন, এরইমধ্যে অনেকবার ফোন করেছে তার নববধূ।

স্টেডিয়ামে হৈ হুল্লোড় করে ক্ষেলা দেখছেন বর

স্টেডিয়ামে হৈ হুল্লোড় করে ক্ষেলা দেখছেন বর

 তবে একা নন, সঙ্গে শালা ও বন্ধুদেরও নিয়ে এসেছিলেন লাবলু। বরের শালা ফাহিম আহমেদ বলেন, বিয়ের পরই দুলাভাই বলেন শালা চলো খেলা দেখতে যাই। এমন দুলাভাই পেয়ে আমি খুব আনন্দিত। আমার দুলাভাইয়ের জন্য দোয়া করবেন।

বরের বন্ধু শিপন বলেন, খেলা চলার সময় তাদের বারবার স্টেজে ডেকে পাঠাচ্ছিলেন লাবলু। প্রতিবারই খেলার আপডেট নিচ্ছিলেন। মোটামুটি বিয়ের কাজ শেষ করে বউয়ে বাসায় রেখেই স্টেডিয়ামে আমাদের নিয়ে চলে আসে। এর আগে বাংলাদেশ যখন আমেরিকার ফ্লোরিডায় খেলেছে তখনও তিনি স্টেডিয়ামে খেলা দেখেছেন।

আরেক বন্ধু এমডি আব্দুস সালাম জানান, আমেরিকার বাফেলো শহরে তাদের একটি ক্রিকেট টিম আছে। বর লাবলু সেই টিমের ভাইস ক্যাপ্টেন। ক্রিকেট নিয়ে তার অনেক স্বপ্ন ছিল। তবে কাজের চাপে কিছু করতে পারেনই। তাই যখনই সুযোগ পান তখনই মাঠে ছুটে যান।

আরো পড়তে পারেন:  ''আজ ভালো কিছু খবর দিয়ে দিনটি শুরু করি''

ক্রিকেট মাঠে এর আগে অনেক ধরণের পাগলামিই দেখা গেছে। তবে বিয়ে করে বউকে রেখে খেলা দেখতে আসার ঘটনা বোধ হয় এটাই প্রথম।

সূত্র: ডেইলি বাংলাদেশ

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

 আরো পড়তে পারেন:  

DSA should be abolished
/ জাতীয়, সব খবর
Loading...
আরো পড়তে পারেন:  লকডাউনের সময় স্বামী-স্ত্রী যে ভুলগুলো করবেন না

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *