পাবজির নেশায় বাবার জমানো ১৬ লাখ টাকা শেষ করলো কিশোর!

 

কিশোর ছেলেটির কাছে বাবার তিনটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট এর অ্যাক্সেস ছিল। তাই পাব্জি খেলার টাকার জন্য তেমন বেগ পেতে হয়নি তার। পাবজির নেশায় বাবার তিনটি অ্যাকাউন্ট থেকে মোট ১৬ লাখ টাকা শেষ করেছে ওই ছেলে।

এনডিটিভি’র এক প্রতিবেদনে জানা গেছে, ১৭ বছর বয়সী ভারতে পাঞ্জাবের ওই কিশোর, জনপ্রিয় গেমটি খেলার সময় বিভিন্ন পেইড অ্যাপ্লিকেশন নিয়ে এবং গেম আপগ্রেড করতে ১৬ লাখ টাকা খরচ করেছে। ওই কিশোর তার মায়ের ফোন থেকে পাবজি খেলতো। ছেলের হাতে দীর্ঘসময় ফোন দেখে মা বকাবকি করলে, পড়াশোনার জন্য তাকে দীর্ঘসময় মোবাইল ব্যবহার করতে হচ্ছে বলে সে জানাতো। যদিও সে ওই সময় তার বন্ধুদের সাথে পাবজি খেলতো।

অ্যাপ্লিকেশন কেনার পাশাপাশি, গেমটি খেলতে গিয়ে সে টিমমেটদের জন্য আপগ্রেডও কিনেছিল বলে জানা গেছে। যদিও সে কোনোদিন বাবা মা-কে গেম খেলার জন্য অর্থ খরচের কথা জানায়নি।

এমনকি ফোনে ব্যাংক থেকে মেসেজ এলে সে সেগুলো ডিলিট করে দিত। তবে ব্যাংকের বই আপডেট করার পর তার বাবা মা বুঝতে পারে যে ১৬ লাখ টাকা তার ছেলে নষ্ট করেছে।

ওই কিশোরের বাবা একজন সরকারি চাকুরীজীবি। সে ছেলের ভবিষত ও চিকিৎসার জন্য ওই টাকা জমিয়ে রেখেছিল। কিশোর যখন পাবজি খেলতো তখন তার বাবার পোস্টিং অন্য জায়গায় ছিল। আর মায়ের পক্ষেও ছেলের এই কীর্তি ধরা সম্ভব হয়নি।

জানা জানি হওয়ার পর ওই কিশোরের পরিবার পুলিশের কাছে সাহায্য চাইলেও, পুলিশ তাদের কোনো সাহায্য করতে পারিনি। কারণ গেম কোম্পানি ভুলভাবে কোনো অর্থ নেয়নি।

 

সূত্র: ডেইলি বাংলাদেশ

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

 আরো পড়তে পারেন:  

Loading...
আরো পড়তে পারেন:  করোনাভাইরাসকে হার মানাল নিউজিল্যান্ড; কিভাবে?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *