পাকিস্তানে ক্রিকেট ম্যাচে সন্ত্রাসীদের গুলি

পাকিস্তানে ক্রিকেট ম্যাচে সন্ত্রাসীদের গুলি
আবারো সন্ত্রাসী হামলার শিকার হলো পাকিস্তান ক্রিকেট। দেশটির লকডাউন শিথিল হওয়ার পর খেলাধুলা চালু হলেও, ক্রিকেট মাঠে সন্ত্রাসীদের এলোপাতাড়ি গুলি যেন সব ওলটপালট করে দিলো ফের। 

তবে কোনো আন্তর্জাতিক ম্যাচে ঘটেনি এই হামলা। বৃহস্পতিবার (৬ আগস্ট) খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশের কোহাট বিভাগের ওরাকজাই জেলার দ্রাদার মামাজাই অঞ্চলে আমন ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনালের সময় ঘটে এই হামলার ঘটনা। এ সময় এলোপাতাড়ি গুলি করে সন্ত্রাসীরা। সৌভাগ্যবশত মাঠে থাকা কারো কোন ক্ষতি হয়নি। এ ঘটনায় পণ্ড হয়ে যায় ম্যাচটি।

পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম দ্য নিউজ প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, আমন ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল ম্যাচ দেখতে সংবাদকর্মী থেকে শুরু করে রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বসহ অনেক দর্শক উপস্থিত ছিলো স্টেডিয়ামে। ম্যাচ শুরু হওয়ার পর নিকটবর্তী এক পাহাড় থেকে সন্ত্রাসীরা গুলি চালাতে থাকে। তবে এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি।

এসময় পালিয়ে নিজেদের জীবন বাঁচিয়েছেন খেলোয়াড়, দর্শক এবং সাংবাদিকরা। এরপর পুনরায় আর ম্যাচ শুরু করা যায়নি।

ওরাকজাই জেলার পুলিশ কর্মকর্তা নিসার আহমাদ জানিয়েছেন, ওই পাহাড়ি অঞ্চলে সন্ত্রাসীদের আনাগোনার কিছু খবর তাদের কানে এসেছিল আগেই। এই সন্ত্রাসী হামলার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবে পুলিশ।

এর আগে ২০০৯ সালের শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের খেলোয়াড়দের ওপর সন্ত্রাসী হামলা হয়েছিল। এরপর থেকে এখনও পাকিস্তানের মাটিতে স্বাভাবিক হয়নি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। তবে এই পরিস্থিতি সামাল দিয়ে স্বাভাবিক করার চেষ্টা করছিল দেশটির ক্রিকেট বোর্ড। এর মধ্যেই নতুন করে এই হামলা হুমকির মুখে ফেলবে কিনা পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডকে তা সময়ই বলে দেবে।

সূত্র: সময় নিউজ

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

 আরো পড়তে পারেন:  

DSA should be abolished
/ জাতীয়, সব খবর
Loading...
আরো পড়তে পারেন:  যাদের প্রশ্রয়ে বেপরোয়া হয়ে ওঠেন পাপিয়া

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *