পাওয়ার ব্যাংক কেনার আগে অবশ্যই এই বিষয়গুলো খেয়াল করবেন

 

বর্তমান সময়ে স্মার্টফোন ল্যাপটপ ও অন্যান্য জরুরি ডিভাইসের মতো প্রয়োজনীয় গ্যাজেট পাওয়ার ব্যাংক। ছোটখাটো কম্পিউটারের ক্ষমতাসম্পন্ন এসব স্মার্টফোন বা ট্যাবলয়েড ক্রমাগত ব্যবহারে ব্যাটারি লাইফ কমে যায়। এক্ষেত্রে সহজ সমস্যার সমাধান পাওয়ার ব্যাংক।

তাছাড়া ঘরের বাইরে কিংবা ভ্রমণের সময় এর বাড়তি পাওয়ার ব্যাকআপের কথা মাথায় রেখে কমবেশি সবাই কাছে রাখতে চান পাওয়ার ব্যাংক। পাওয়ার ব্যাংক কেনার আগে লক্ষণীয় বিষয়গুলো দেখে নিন।

* দৈনিক কতবার স্মার্টফোন চার্জ করতে হয় এবং কটি ফোন চার্জ করবেন- সে অনুসারে পাওয়ার ব্যাংক পছন্দ করুন। প্রয়োজনে বেশি পাওয়ার ক্যাপাসিটির ব্যাংক কেনা যেতেই পারে। তবে সেটিকে ফুল চার্জ দিতে সময় লাগবে। তবে ক্যাপাসিটি বেশি হলে ভ্রমণে যাওয়ার সময়ে কাজে লাগে বেশি। পাওয়ার ব্যাংক একবার ফুল চার্জ দিয়ে নিলে একাধিক ফোনে একাধিকবার চার্জ দেওয়া যায়।

* যে ব্র্যান্ডের পাওয়ার ব্যাংকই কিনুন তবে একসঙ্গে অন্তত দুটি বা তার বেশি স্মার্টফোন চার্জ দেওয়ার সুযোগ রয়েছে কিনা দেখে নিন। পাশাপাশি এটিও দেখা জরুরি, পাওয়ার ব্যাংকটিতে ব্যাটারির ‘স্ট্যাটাস ইন্ডিকেটর’ রয়েছে কিনা। এ ধরনের ইন্ডিকেটর থাকলে পকেটের পাওয়ার ব্যাংকে ব্যাটারির চার্জ কতটা রয়েছে, সেটি সহজে দেখে নিতে পারবেন এবং সে অনুসারে ব্যবহার করতে পারবেন।

* পাস থ্রু চার্জিং সাপোর্টেড কিনা তা দেখে কেনা উচিত। পাস থ্রু বলতে বোঝায়, আপনি পাওয়ার ব্যাংক চার্জ করা অবস্থায় পাওয়ার ব্যাংকের মাধ্যমে ফোনও চার্জ দিতে পারবেন। মাঝে মাঝে এমন অবস্থায় পড়তে হয় যেখানে একটি অ্যাডাপটর দিয়ে আপনাকে চার্জ দিতে হবে।

* ফাস্ট চার্জিংয়ের সুবিধা রয়েছে এমন পাওয়ার ব্যাংক কিনুন। এক্ষেত্রে হয়তো টাকা একটু বেশি লাগতে পারে। তবে দীর্ঘমেয়াদি বিনিয়োগ হিসেবে সেটি লাভজনক।

* বেনামি কোনও কোম্পানির কিংবা কম দামের প্রলোভনে পাওয়ার ব্যাংক না কেনাই ভালো। চেষ্টা করুন নামি ব্র্যান্ডের পাওয়ার ব্যাংক কেনার।

আরো পড়তে পারেন:  মুরসির ছেলেকে বিষপ্রয়োগে হত্যা: আইনজীবীদের অভিযোগ

* পাওয়ার ব্যাংকের ভেতরকার ব্যাটারি সাধারণত লিথিয়াম আয়ন অথবা লিথিয়াম পলিমার হয়ে থাকে। যদিও দুটি ব্যাটারির ধরনের মধ্যে তেমন কোনও পার্থক্য নেই তবে লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারিগুলো বেশি হালকা এবং ফ্লেক্সিবল হয়ে থাকে। যে পাওয়ার ব্যাংকটি কিনছেন, সেটিতে লিথিয়াম-পলিমার ব্যাটারি রয়েছে কিনা দেখে নিন।

* অ্যান্ড্রয়েড ফোন হোক কিংবা আইফোন- ফোনের চার্জিংয়ের জন্য সঙ্গে কি ক্যাবল দিচ্ছে তা দেখে নেয়া উচিত। এমন একটি পাওয়ার ব্যাংক কিনলেন যার সঙ্গে ইউএসবি টু ক্যাবল দেয়া হয়ে থাকে তা আপনার কোনো কাজে আসবে না যদি আপনার ফোনের ইনপুট পোর্ট ইউএসবি টাইপ সি হয়ে থাকে। তাই এটি দেখে নেয়াও জরুরি।

 

সূত্র: বিডি প্রতিদিন

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

 আরো পড়তে পারেন:  

Loading...
আরো পড়তে পারেন:  আপ্যায়ন ব্যয় ৯০ কোটি টাকা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *