নিরাপত্তা পরিষদে ভেটো দিল রাশিয়া ও চীন; ‘লজ্জাজনক’ বলল আমেরিকা

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে সিরিয়া বিষয়ক একটি প্রস্তাবে ভেটো দিয়েছে রাশিয়া ও চীন। আর এ ঘটনাকে ‘লজ্জাজনক’ বলে নিন্দা জানিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও।

সিরিয়া সরকারের অনুমতি না নিয়েই দেশটিতে কথিত মানবিক ত্রাণ পাঠানোর লক্ষ্যে গতকাল নিরাপত্তা পরিষদে যৌথভাবে একটি প্রস্তাবের খসড়া উত্থাপন করে বেলজিয়াম, জার্মানি ও কুয়েত। কিন্তু পরিষদের দুই স্থায়ী সদস্য দেশ চীন ও রাশিয়ার ভেটোর মুখে প্রস্তাবটি পাস হতে পারেনি।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও

প্রস্তাবের খসড়ায় বলা হয়েছিল, আন্তর্জাতিক সমাজের পক্ষ থেকে তুরস্কের দু’টি এবং ইরাকের একটি সীমান্ত ক্রসিং দিয়ে সিরিয়ায় কথিত ত্রাণ পাঠানো হবে।তবে এ কাজের জন্য দামেস্কের অনুমতি নেয়া হবে না।

প্রস্তাবটির ওপর নিরাপত্তা পরিষদে ভোটাভুটির আগে চীন ও রাশিয়া জানায়, সিরিয়ার মানবিক পরিস্থিতির অপব্যবহার করে দেশটির সার্বভৌমত্বকে বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শনের জন্য এ প্রস্তাব আনা হয়েছে।

এখন পর্যন্ত পশ্চিমা দেশগুলো অসংখ্যবার সিরিয়ায় মানবিক ত্রাণের ছদ্মাবরণে দেশটিতে তৎপর সন্ত্রাসীদের জন্য অস্ত্র ও রসদ পাঠিয়েছে।

মধ্যপ্রাচ্যের ভারসাম্যকে ইহুদিবাদী ইসরাইলের অনুকূলে পরিবর্তন করে দেয়ার লক্ষ্যে ২০১১ সালের মার্চ মাসে আমেরিকা, সৌদি আরব ও তাদের আঞ্চলিক মিত্ররা সিরিয়ায় সহিংসতা চাপিয়ে দেয়। বিগত বছরগুলোতে ইরান ও রাশিয়ার সহযোগিতায় উগ্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠী দায়েশকে পরাজিত করে সিরিয়ায় সেনাবাহিনী। দেশটিতে তৎপর অন্যান্য সন্ত্রাসী গোষ্ঠীও বর্তমানে পরাজয়ের দ্বারপ্রান্তে রয়েছে। পশ্চিমা শক্তিগুলো ও তাদের আঞ্চলিক মিত্ররা সন্ত্রাসীদের এ পরাজয়ের বিষয়টি সহজভাবে মেনে নিতে পারছে না।

সূত্র: পার্স টুডে

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *