ডেনমার্কের স্কুলে নামাজ শিক্ষার ভিডিও নিয়ে তুমুল বিতর্ক (ভিডিও)

 

সম্প্রতি ডেনমার্কের একটি স্কুলে নামাজ পড়া শেখানো নিয়ে একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওটিতে দেখা যায় জোব্বা টুপি পরিহিত
আফ্রিকান বংশোদ্ভূত একটি বাচ্চা সামনে দাড়িয়ে কিভাবে নামাজ পড়তে হয় তা দেখাচ্ছে আর পেছনে একজন মহিলা শিক্ষক দাড়িয়ে বাকি বাচ্চাদের যাদের বেশিরভাগ জাতিগতভাবে ড্যানিশ, আদেশ দিচ্ছেন তাকে অনুসরণ করার জন্য। স্পুটনিকনিউজ

ভিডিওটি সারা ডেনমার্কে রাজনৈতিক থেকে সাধারণ ড্যানিশ সকলের মাঝে এক বিশাল বিতর্কের সৃষ্টি করেছে। প্রাথমিকভাবে তারিখ জানা না গেলেও ড্যানিশ টিভি২ নামের একটি চ্যানেল একে ২০১৮ সালের নভেম্বরে করা সাউদার্ন জুটল্যান্ডের ভেলজে পৌরসভার থিয়েরগড স্কুলের একটি ক্লাসের ভিডিও বলে প্রকাশ করে। ক্লাসের ভিডিও করার নিষেধাজ্ঞা সত্তে¡ও এক সুদানি বংশোদ্ভুত বাচ্চার অভিভাবক এটি ভিডিও করেন এবং ইন্টারনেটে আপলোড করেন বলে টিভি২ জানান বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গ্রেট হগার্ড ।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভিডিওটি প্রকাশিত হওয়ার পর এটি নিয়ে বিরুপ মন্তব্য করা শুরু হয়। স্কুলের সকল শিক্ষকদের চাকরি থেকে অব্যাহতি দেয়ার কথাও বলেন অনেকে। কেউ স্কুলটিকে কোরান স্কুল বলেন তো কেউ সম্পুর্ণ স্কুলটিকেই বন্ধ করে দেয়ার কথা বলেন। অভিযোগ করেন এটি ড্যানিশ বাচ্চাদের মৌলবাদী শিক্ষা দিচ্ছে। রাজনৈতিকভাবেও নানা ধরণের আলোচনা সমালোচনা হয়েছে এ বিষয়ে।
স্কুল কর্তৃপক্ষ জানায় বিভিন্ন ধরণের জীবনপদ্ধতি সম্পর্কে বাচ্চাদের পরিচিত করতেই এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছিল এবং স্কুলের সকল শিক্ষক ও কর্মচারীর কাজের উপর তাদের সম্পূর্ণ আস্থা রয়েছে। তবে ভবিষ্যতে ভিডিও ধারণের ব্যাপারে আরো সতর্কতা অবলম্বন করা হবে।
উল্লেখ্য ইসলাম ডেনমার্কের প্রধান সংখ্যালঘু ধর্ম। ২০১৮এ হওয়া একটি ধারণা অনুযায়ী ডেনমার্কে ৩ লক্ষের বেশী মুসলমান আছেন যা মোট জনসংখ্যার ৫.৩ শতাংশ।

 

সূত্র: আমাদের সময়

প্রতি মূর্হর্তের ভাইরাল খবর জানুন এখানে

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

আরো পড়তে পারেন:  হাতে অস্ত্র তুলে নিচ্ছে কাশ্মীরের তরুণরা, ভারত বিরোধিতাই একমাত্র লক্ষ্য!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *