ট্রাম্পের ছেলের মুখে থুতু ছুড়লেন এক নারী!

গত মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয় রাজ্যের শিকাগো শহরে এক রেস্তোরাঁয় নৈশভোজে অংশ নেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ছেলে এরিক ট্রাম্প। আর সেখানে এরিকের মুখে থুতু দিয়েছেন ওই রেস্তোরাঁর এক নারী কর্মী।

এ ঘটনার পর দিন খাবার পরিবেশনকারী ওই নারীকে ছুটিতে পাঠিয়েছে রেস্তোরাঁ কর্তৃপক্ষ। খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

ওই নারী কর্মীর ছুটিতে পাঠিয়ে দেয়া প্রসঙ্গে রেস্তোরাঁ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ‘তিনি কেন এমন অভব্য আচরণ করেছেন আমাদের বোধগম্য নয়। আমরা এখনও ওই কর্মীর সঙ্গে কথা বলতে পারিনি। তবে এরই মধ্যে রেস্তোরাঁ কর্তৃপক্ষ ওই নারী কর্মীকে ছুটিতে পাঠিয়েছে।’

কোনো গ্রাহকের সঙ্গেই এমন করা উচিত নয় বলে এ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে রেস্তোরাঁটির মানবসম্পদ বিভাগ।

রয়টার্স জানায়, মঙ্গলবার ট্রাম্প অর্গানাইজেশনের এক ব্যবসাসংক্রান্ত ভোজে শিকাগোর পশ্চিমে অবস্থিত এক অভিজাত রেস্তোরাঁয় নৈশভোজে অংশ নিয়েছিলেন এরিক ট্রাম্প। ওই ভোজেই খাবার পরিবেশন করতে এসে হুট করেই এরিকের মুখে থুতু ছোড়েন রেস্তোরাঁর ওই নারী কর্মী।

এমন ঘটনায় ট্রাম্প অর্গানাইজেশনের পক্ষ থেকে কেউ কোনো মন্তব্য করতে রাজি না হলেও এরিক ট্রাম্প বলেছেন, যে এ ধরনের আচরণ করেন, তিনি মানসিক সমস্যায় আক্রান্ত তা বোঝাই যাচ্ছে।

এদিকে ট্রাম্প অর্গানাইজেশনের বরাত দিয়ে শিকাগো ট্রিবিউন জানিয়েছে, রেস্তোরাঁ কর্তৃপক্ষ ওই নারীকে প্রথম কারাগারে পাঠালেও এরিক ট্রাম্প এ ঘটনায় কোনো অভিযোগ না করায় ওই নারীকে পরে ছুটিতে পাঠিয়ে দেয়া হয়।

এ বিষয়ে শিকাগো পুলিশপ্রধান এক টুইটবার্তায় জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থা ও শিকাগো পুলিশ এ ঘটনা পর্যালোচনা করে দেখেছে।

সূত্র: যুগান্তর

আন্তর্জাতিক আরো প্রতি মূর্হর্তের খবর জানুন এখানে

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *