ট্রাম্পের কাছ থেকে দূরে সরছে তার সমর্থক মিডিয়া

মিডিয়া মোঘল রুপার্ট মারডক নিজে এবং তার মালিকানাধীন যুক্তরাষ্ট্রের গণমাধ্যমগুলোকে দীর্ঘদিন ধরে ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থক হিসাবে মনে করা হতো। কিন্তু সেখানে একটা পরিবর্তন ঘটতে চলেছে বলে বলা হচ্ছে। মারডকের মালিকানাধীন ফক্স নিউজ, নিউইয়র্ক পোস্ট এবং ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল—তিনটি প্রভাবশালী প্রচার মাধ্যম তাদের পাঠক বা দর্শকদের ট্রাম্পের পরাজয়ের ব্যাপারে সতর্ক করে দিতে শুরু করেছে। সেই সঙ্গে তারা প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের কাছ থেকে নিজেদের সরিয়ে নিতে শুরু করেছে। খবর বিবিসির

কোনো তথ্যপ্রমাণ ছাড়াই নির্বাচনে জালিয়াতির যে অভিযোগ তুলেছেন ট্রাম্প। সে বিষয়ে বৃহস্পতিবার ফক্স নিউজের তারকা উপস্থাপক শ্যন হ্যানিটি বলেছিলেন, এই নির্বাচনের ফলাফলের বৈধতা নিয়ে সন্দেহ করার অধিকার আমেরিকানদের আছে। তবে শুক্রবারই ফক্স নিউজের আরেকটি অনুষ্ঠানে উপস্থাপক ব্রেট বেইয়ার বলেছেন, আমরা এরকম কিছু দেখতে পাইনি। আমাদের সামনে এরকম কোনো তথ্য আসেনি।

২০১৬ সালের নির্বাচনে ক্ষমতায় আসার সময় ট্রাম্পকে সমর্থন করেছিল ফক্স নিউজ। কিন্তু এখন তারা ট্রাম্পের বিদায়ের ব্যাপারে দর্শকদের সতর্ক করে দিতে শুরু করেছে। কীভাবে তার বিদায় নেওয়া উচিত, সেই বিষয়েও তারা পরামর্শ দিতে শুরু করেছে। ট্রাম্প সমর্থক হিসাবে পরিচিত ফক্স নিউজের উপস্থাপক লরা ইনগ্রাহাম অনুষ্ঠান চলাকালে বলেছেন, নির্বাচনের ফলাফল পক্ষে না গেলে ট্রাম্পের উচিত হবে ধৈর্য ও স্থিরতার সঙ্গে তা মেনে নেওয়া।

পরাজয় হলে সেটা মেনে নিয়ে দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে গেলেই প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের উত্তরাধিকার অর্থবহ হয়ে উঠবে। একই রকমের বার্তা দিয়ে রূপার্ট মারডকের আরেকটি পত্রিকা ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল একটি মতামত নিবন্ধ প্রকাশ করেছে। সেখানে বলা হয়েছে, ট্রাম্প হারতে পছন্দ করেন না, তিনি অবশ্যই শেষ পর্যন্ত লড়াই করবেন। কিন্তু পরাজয় নিশ্চিত হলে আমেরিকার গণতন্ত্রকে মেনে নিয়ে মর্যাদার সঙ্গে অফিস ছেড়ে গেলে তিনি নিজের প্রতি ও দেশের প্রতি সম্মান দেখাবেন। আর রূপার্ট মারডকের ট্যাবলয়েড পত্রিকা নিউইয়র্ক পোস্টে শুক্রবার প্রকাশিত দুইটি মতামত নিবন্ধে ধারণা প্রকাশ করা হয়েছে যে, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প নির্বাচনে হারতে যাচ্ছেন। তথ্যপ্রমাণ ছাড়াই নির্বাচনে কারচুপির যে অভিযোগ তুলেছেন ট্রাম্প, তাও আমলে নেয়নি পত্রিকাটি। সূত্র: ইত্তেফাক

আরো পড়তে পারেন:  ২৫ নভেম্বর: ইতিহাসে আজকের এই দিনে

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

 আরো পড়তে পারেন:  

DSA should be abolished
/ জাতীয়, সব খবর
Loading...
আরো পড়তে পারেন:  কোনো হাসপাতালেই চিকিৎসা মিলল না, মারা গেল শিশু রিফাত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *