করোনা গজব নির্মূলে সংসদে মোনাজাতে মন্ত্রী-এমপিদের তওবা

করোনারা আসমানী গজব উল্লেখ করে এর থেকে মুক্তির জন্য আল্লাহর সাহায্য প্রার্থণা করে নিজেদের ভুল ত্রুটির জন্য তওবা করেছেন সরকারের মন্ত্রী-এমপিরা। রোববার জাতীয় সংসদে সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম ও ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ’র মৃত্যুতে তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় করা মোনাজাতে অংশ নিয়ে সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ সংসদে উপস্থিত সবাই এই তওবায় অংশ নেন।

মোনাজাত পরিচালনা করেন ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া।

মোনাজাতে ডেপুটি স্পিকার বলেন, ‘আমরা তোমার কাছে তওবা করেছি। আল্লাহ তুমি বলেছ, তুমি তওবা পছন্দ কর। আমরা তওবা করছি- আমরা আর গুনাহ করব না। আমরা নিজেরা ভালোভাবে চলাফেরার চেষ্টা করব। তারপরও কি তুমি আমাদের প্রতি রহমত করবে না? দয়া করে তুমি আমাদের প্রতি রহমত কর। তুমি যদি আমাদের খালি হাতে ফিরিয়ে দাও তাহলে তোমার নামের অমর্যাদা হবে। আমাদের খালি হাতে ফিরিয়ে দিয়ে তোমার কী লাভ?’

বাংলাদেশের মাটি থেকে করোনা নির্মূলের জন্য আল্লাহর কাছে অশ্রুঝরা কণ্ঠে তিনি বলেন, আমাদেরকে তুমি করোনার হাত থেকে সুরক্ষা দান কর। তোমার গজব, আজাব তুমি তুলে নাও মাওলা। বাংলাদেশের মানুষের প্রতি তুমি তোমার রহমত বর্ষণ কর। তুমি তোমার রহমতের শামিয়ানা দিয়ে আমাদের বাংলাদেশকে ঢেকে দাও। তুমি সবই পার। আমাদেরকে হেফাজত কর। তুমি আমাদের মন্ত্রিপরিষদের সদস্যদের হেফাজত কর। বিশেষ করে প্রধানমন্ত্রীকে তুমি হেফাজত কর। তিনি যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছেন, সেই চলার পথকে তুমি সুগম করে দাও।’

ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়া বলেন, ‘আমার ছোটবেলার খেলার সাথী মোহাম্মদ নাসিম ও ধর্মমন্ত্রী মোহাম্মদ আব্দুল্লাহর রুহের মাগফেরাত কামনা করছি। আল্লাহ তুমি করোনার দিয়ে আমাদের ওপরে আজাব-গজব নাজিল করেছ। আল্লাহ তুমি আমাদের আর কত পরীক্ষা করবে? আমাদের তো ঈমানের জোর খুব কম। আমাদের আর পরীক্ষা নিও না। আমাদের দেশ থেকে করোনার এই গজব এবং আজাব তুমি তুলে নাও। সারা পৃথিবী থেকে এই করোনা থেকে তুমি নির্মূল করে দাও। আল্লাহ তুমি তোমার খাস রহমত ও বরকত দিয়ে আমাদের দেশটাকে ভরপুর করে দাও। আল্লাহ তোমার রহমতের শামিয়ানা দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ঢেকে রাখ।’

আরো পড়তে পারেন:  দুর্ধর্ষ মোসাদের 'ছোট্ট চুরি', যেভাবে মহামারি থেকে বাঁচাল ইসরায়েলকে!

 

সূত্র: বিডি জার্নাল

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

 আরো পড়তে পারেন:  

Loading...
আরো পড়তে পারেন:  ‘আমি ওবামা প্রেসিডেন্ট ছিলাম, মনে আছে তো?’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *