কঠোর হচ্ছে ব্রিটেন, শঙ্কায় প্রবাসীরা

আশ্রয়প্রার্থী বা অ্যাসাইলাম আবেদনকারীদের প্রতি কঠোর হচ্ছে ব্রিটেন। যাদের আবেদন প্রত্যাখ্যাত হয়েছে, ২১ দিনের ভেতর তাদের ব্রিটেন ছাড়তে হতে পারে। এ অবস্থায় বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশ থেকে আসা আশ্রয়প্রার্থী হাজারো আবেদনকারী শঙ্কায় রয়েছেন।

একদিকে করোনার সঙ্গে সম্মুখযুদ্ধে ব্রিটিশ সরকার অন্যদিকে অর্থনৈতিক মন্দা গ্রাস করতে যাচ্ছে পুরো ব্রিটেনকে। এরমধ্যেই ব্রিটেনে অবস্থানরত হাজার হাজার আশ্রয়প্রার্থী আবেদনকারীকে নিজ দেশে ফেরত পাঠানোর উদ্যোগ নিচ্ছে সরকার।

কেসি সলিসিটরসের প্রিন্সিপাল আবুক কালাম চৌধুরী বলেন, অনেকের কেস রিফিউজ হওয়ার পরে বছরের পর বছর পড়ে থাকেন এবং সরকার সে খরচগুলো দিতে বাধ্য থাকে। এই সাপোর্টাকে যদি সরানো যায় তাহলে সরকারের বিশাল একটা অংক বেঁচে যাবে।

ইতোমধ্যে বেড়েছে আশ্রয়ের এই আবেদন প্রত্যাখ্যাত হওয়ার হার। তবে, আশ্রয় প্রার্থনার আবেদন করার সময় যথাযথ যুক্তি উপস্থাপন করে অগ্রসর হওয়া উচিত বলে মনে করছেন এই আইনজীবী।

অভিবাসন বিষয়ক আইনজীবী ব্যারিষ্টার শরীফ হায়দার বলেন,

নিজ দেশে নিরাপদ নয় বলেই ব্রিটেনে আশ্রয় প্রার্থনা করছেন এসব আবেদনকারী। আর শেষমেষ তাদেরকেই নোটিশ দিয়ে পাঠিয়ে দেওয়া হলে সেটি অমানবিক বলে মনে করছেন আবেদনকারীরা।

এক ব্রিটেন প্রবাসী বাংলাদেশি বলেন, আমি মনে করি এই লাখ লাখ মানুষের কথা ব্রিটেন সরকার চিন্তা করে দেখবে।

ব্রিটেনে বাংলাদেশি আশ্রয়প্রার্থীদের মাঝে রাজনৈতিক কারণ দেখিয়ে আবেদন করার প্রবণতা বেশি। যার কারণে তারা বাংলাদেশকে নিজের বসবাসের জন্য ঝুকিপূর্ণ বলে উপস্থাপন করছে।

ব্রিটেনে আশ্রয় প্রার্থনা করে বঞ্চিত হয়েছেন এমন হাজারো অভিবাসীকে বের করে দেওয়ার মহাপরিকল্পনা নিয়েছে ব্রিটিশ সরকার। দেশটি থেকে বের করে দিতে মাত্র একুশ দিনের নোটিশ দেওয়া হতে পারে তাদের। আর তাই বেশ উদ্বেগ উৎকণ্ঠার মধ্যে সময় কাটাচ্ছে হাজারো অভিবাসী।

 

সূত্র: সময় নিউজ

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

 আরো পড়তে পারেন:  

আরো পড়তে পারেন:  বাংলাদেশকে নিয়ে ভারতীয় প্রতিমন্ত্রীর তাচ্ছিল্য: জবাবে যা লিখলেন করন থাপার
নবীজির ৫ বৈশিষ্ট্য
/ ইসলামী-জীবন, সব খবর
Loading...
আরো পড়তে পারেন:  মার্চ পর্যন্ত আজহারীর সব মাহফিল স্থগিত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *