‘ইসরাইল ইরানের নিরাপত্তা ক্ষতিগ্রস্ত করলে আমিরাত শত্রু বলে গণ্য হবে’

 

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সামরিক বাহিনীর চিফ অব স্টাফ মেজর জেনারেল মোহাম্মাদ হোসেইন বাকেরি বলেছেন, ইহুদিবাদী ইসরাইলের মাধ্যমে যদি ইরানের নিরাপত্তা সামান্যতম ক্ষতিগ্রস্ত হয় তাহলে সংযুক্ত আরব আমিরাতকে শত্রু বলে বিবেচনা করা হবে এবং তার দায়ভার আবুধাবিকে নিতে হবে। সম্প্রতি ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করেছে আমিরাত।

টেলিভিশনে সম্প্রচারিত এক সাক্ষাৎকারে জেনারেল বাকেরি বলেন, যদিও গত দুই বছর আমিরাত ইরানকে বার বার বার্তা দিয়ে অনুরোধ করেছে যে, সৌদি আরবকে যেভাবে দেখে তেহরান সেভাবে যেন আবুধাবিকে না দেখে, তারপরও তারা ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার পদক্ষেপ নিয়েছে।

ইরানের এ শীর্ষ কমান্ডার বলেন, “ইসরাইলের সঙ্গে আমিরাতের সম্পর্ক স্বাভাবিক করার পর সবকিছু পাল্টে গেছে যার অর্থ হচ্ছে ইসরাইল এখন আমিরাতে সামরিক ঘাঁটি করবে, গোয়েন্দা ঘাঁটি করবে এবং সাইবার অপারেশন চালাবে। যদি ইহুদিবাদীরা এ অঞ্চলে পা রাখে এবং আমাদের নিরাপত্তা ও প্রতিরক্ষা ক্ষতিগ্রস্ত হয় তাহলে সংযুক্ত আরব আমিরাতকে আমরা ইসরাইলি ঘাঁটি গড়ার সুযোগদানকারী দেশ হিসেবে গণ্য করব এবং তাদেরকে শত্রু হিসেবেই দেখব।”

নীলনদ থেকে ফোরাত নদী পর্যন্ত শাসন প্রতিষ্ঠার যে স্বপ্ন দেখে ইসরাইল সে প্রসঙ্গে জেনারেল বাকেরি বলেন, ইসরাইল নিজেই তার অস্তিত্ব রক্ষার লড়াইয়ে ব্যস্ত; আমেরিকা যদি এক মুহূর্তের জন্য অর্থনৈতিক সমর্থন বন্ধ করে দেয় তাহলে সে অস্তিত্বহীন হয়ে পড়বে।

 

সূত্র: পার্স টুডে

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

 আরো পড়তে পারেন:  

Loading...
আরো পড়তে পারেন:  সিঙ্গাপুরের গবেষণা: বাংলাদেশে ১৯ মের মধ্যে করোনা বিদায় নেবে ৯৭ শতাংশ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *