আগরতলা বিমানবন্দর উভয় দেশের ব্যবহারের সুযোগ থাকলে বিবেচনায় নেয়া যেতে পারে, বললেন ড. ইমতিয়াজ

 

আগরতলা বিমানবন্দরে নিরাপদে প্লেন অবতরণে ক্যাট আই লাইট স্থাপনের জন্য জমি চেয়ে ভারত বাংলাদেশকে অনুরোধপত্র দিয়েছে। ডয়চে ভেলে

এ প্রসঙ্গে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক ড. ইমতিয়াজ আহমেদ বলেন, বাংলাদেশ-ভারত উভয় দেশ ওই বিমানবন্দর ব্যবহার করতে পারে, সে ধরনের সুযোগ তৈরি হলে ভারতের প্রস্তাব বিবেচনায় নেয়া যেতে পারে।

বৃহস্পতিবার ডয়চে ভেলেকে তিনি বলেন, আসলে দেখা দরকার বিষয়টি আসলে কী? এটা হতে পারে দুটি দেশ মিলে একই এয়ারপোর্ট ব্যবহার করছে, বিশ্বে এ ধরনের এয়ারপোর্ট আছে। কিন্তু সমস্যা হয়ে গেছে বিদেশের উদাহরণ এখানে দেয়া ঠিক না। কারণ দক্ষিণ এশিয়ার ইমিগ্রেশন পদ্ধতি বা কারেন্সি এক না।

তিনি আরো বলেন, যৌথ এয়ারপোর্টও বর্তমান অবস্থায় সম্ভব কিনা সেটা দেখা দরকার। বিমানবন্দর সম্প্রসারণ করতে হলে তাদের এলাকায় করবে, এটা তো হতে পারে না অন্য দেশের জমি নিয়ে করবে। সেটা হলে তো এর মধ্যে পৃথিবী উল্টাপাল্টা হয়ে যাবে সেটা সম্ভব না। তবে যৌথভাবে এয়ারপোর্ট ব্যবহারের বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা হতে পারে।

অধ্যাপক ইমতিয়াজ বলেন, এটা সার্বভৌমত্বের বিষয়। জমি যদি যৌথভাবে ব্যবহার করা যায়, অন্য দেশের মতো একই এয়ারপোর্ট যৌথভাবে রানওয়ে ব্যবহার করা হচ্ছে, ইমিগ্রেশন যৌথভাবে করা হয় সেটা হলে বাংলাদেশে বিমানও সেখানে নামতে পারবে এবং একইভাবে ভারতও ব্যবহার করবে, সে ধরনের কিছু হলে সম্ভব, কিন্তু এমনি জমি চাওয়া, সেটা তো কোনোভাবেই সম্ভব না। 

সূত্র: আমাদের সময়

দেশের আরো প্রতি মূর্হর্তের খবর জানুন এখানে

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *