অভিনব সচেতনতা ভাইরাল (ভিডিও)

 

কভিড-১৯ করোনাভাইরাস নিয়ে সচেতনতায় শেরপুরের নালিতাবাড়ীর এক রিকশাচালকের ভিন্নধর্মী উদ্যোগ ভাইরাল হয়েছে নেট দুনিয়ায়। দুই মিনিট ৫১ সেকেন্ডের ওই ভিডিওতে করোনা থেকে নিজেকে এবং যাত্রীদের সুরক্ষা দিতে মো. শহিদুল ইসলাম নামের সেই রিকশাচালক বেশ সচেতনতার পরিচয় দিয়েছেন। তিনি করোনামুক্ত যাত্রী সেবা দিতে যে ব্যবস্থা নিয়েছেন তা এখন সর্বমহলে প্রশংসিত হচ্ছে। রিকশাচালক শহিদুল ইসলাম জানান, ”আমার রিকশার এক যাত্রী থেকে যেন অন্য যাত্রীর করোনা না হয় এবং তার পরিবারে না ছড়ায়- সে জন্য এমন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।”

শুধু যাত্রীদেরই নয় তিনি নিজেও থাকছেন সতর্ক। নিজে হাতে পরেছেন হ্যান্ড গ্লাভস। রিকশা স্প্রে শেষে নিজেও ভালো করে হাত ধুয়ে নিচ্ছেন। সেজন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা রিকশায় রেখেছেন। রিকশাচালকের এমন অভিনব সচেতনতা দেখে একজন তার কাছে জানতে চান, ভাইরাসমুক্ত করতে স্প্রেতে কি কি ব্যবহার করছেন। উত্তরে শহিদুল ইসলাম জানান, স্প্রেতে ব্লিসিং পাউডার, হারপিক ও স্যাভলনসহ অন্যান্য সামগ্রী রয়েছে, যা ভাইরাসমুক্ত রাখে। এসময় রিকশায় বসে থাকা এক যাত্রী বলেন, এই রিকশায় চড়ে আমার খুব ভালো লাগছে। আমি মনে করছি, আমি করোনাভাইরাস মুক্ত। আমি মাস্ক পরে আছি। এছাড়া এই রিকশাওয়ালা ভাই মোটামুটি পরিপাটি ব্যবস্থা করেছেন। রিকশাটাও জীবাণুমুক্ত। সবমিলিয়ে নিরাপদ মনে করছি।

রিকশাচালকের এই রকম সতর্কতায় উপস্থিত একজন সাংবাদিক মুগ্ধতা প্রকাশ করে জানান, আমি এই রকম অভিনব সচেতনাতার জন্য তাকে স্বাগত জানাই। আমি মনে করি দেশের প্রত্যেকটি মানুষ এমন সচেতন হলে আমরা করোনা মুক্ত থাকতে পারবো। এসময় উপস্থিত অন্যরাও প্রশংসা করেন রিকশাচালক শহিদুলের। উল্লেখ্য, বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত ৪৮ জন করোনা আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেছে। এর মধ্যে পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। দেশজুড়ে সরকারিভাবে নানা উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে করোনা নিয়ে সচেতনতা সৃষ্টিতে। এরপরও মানুষের মধ্যে অসচেতনতা দেখা যাচ্ছে। নিয়ম ভঙ্গের কারণে অনেকেই শাস্তির মুখোমুখিও হয়েছেন। এর মধ্যে রিকশাচালকের এমন অভিনব সচেতনতার উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে।

আরো পড়তে পারেন:  ‘ভিসার মেয়াদ নিয়ে চিন্তার কোনও কারণ নেই’

সূত্র: প্রথম বার্তা

এই পোস্টটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে ফেইসবুক পেজটি লাইক দিন এবং এই রকম আরো খবরের এলার্ট পেতে থাকুন

 আরো পড়তে পারেন:  

Loading...
আরো পড়তে পারেন:  প্রতিশ্রুতি দিয়েও শ্রমিকদের বেতন দেয়নি ৩৭০ কারখানা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *